>
Uncategorized

দর্শকরা স্বাদ নিন চকোলেটের – সুজন (‌নীল)‌ মুখোপাধ্যায়

পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করছেন সুজন (‌নীল)‌ মুখোপাধ্যায় এই পুজোয়। তাঁর ‘‌চকোলেট’‌ মুক্তি পাচ্ছে আগামী শুক্রবার। কিন্তু পুজোয় ‘‌চকোলেট’‌ ছাড়াও মুক্তি পাচ্ছে আরও পাঁচটি বাংলা ছবি। প্রত্যেকটাই বিগ বাজেটের।

প্রযোজনা সংস্থা গ্রিনটাচ এন্টারটেনমেন্টের সিদ্ধান্তে ‘‌চকোলেট’‌ মুক্তি পাচ্ছে আগামী শুক্রবার। গতবারও এই প্রযোজনা সংস্থাই আবহেই ‘‌কাটমুণ্ডু’‌ রিলিজ করেছিলেন। সেটাও ছিল কমেডি ছবি, ব্যবসাও করেছিল ভালই। পরিচালক  সুজন (‌নীল)‌ মুখোপাধ্যায় বলেন আমার মনে হয়, পুজোয় যেহেতু আর কোনও কমেডি ছবি রিলিজ করছে না সেহেতু ‘‌চকোলেট’‌ ভালই ব্যবসা করবে। অন্য ছবিগুলোর লড়াই যখন চলবে, দর্শকরা তখন চকোলেটের স্বাদ নিতে আসবেন, এটাই আমার বিশ্বাস। ফলে, আমরা লড়াইতে নেই।‌

 

 

chocolate-2

তিনি আর বলেন ভালই লাগছেই। এর আগের ছবি ‘‌ঘেঁটে ঘ’‌ তো মুক্তি পেল না। সেদিন আমি, রুদ্র (‌রুদ্রনীল ঘোষ)‌ আর অপু (‌শাশ্বত)‌ আলোচনা করছিলাম, ছবিটা যদি ঠিক সময়ে মুক্তি পেত তাহলে আমাদের কেরিয়ারে অনেক পরিবর্তন ঘটতে পারত। তবে একটা কথা ঠিক, সেই ছবিটাই কিন্তু সাহায্য করেছে এই ছবিটা পরিচালনা করার ক্ষেত্রে।

এটা একটা ব্ল্যাক কমেডি। সেখানে অসংখ্য লেয়ার আছে। একটা চকোলেটের যেমন একাধিক লেয়ার থাকে বহুরকমের স্বাদ থাকে, এখানেও সেরকম। গল্পটা বলা যায় চকোলেট আর আংটির প্রেম।এক পুলিশ অফিসারকে তার বান্ধবী একটা আংটি উপহার দেয়। কিন্তু সেই আংটিটা চুরি করে এক চোর। কিন্তু তার কাছ থেকেও উধাও হয়ে যায় আংটিটা। এরপর আংটির পেছনে ধাওয়া করে চোর আর চোরের পেছনে পুলিশ। আর এর প্রেক্ষিতে উঠে আসে একটা করে নতুন গল্প।

 

 

Chocolate

এই ছবিতে পুলিশ হয়েছে পরমব্রত, চোর রুদ্রনীল আর বান্ধবীর ভূমিকায় পায়েল সরকার। এছাড়াও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে আছেন খরাজ মুখোপাধ্যায়, কাঞ্চন মল্লিক আর অম্বরীশ ভট্টাচার্য। আমার বাবাও (‌অরুণ মুখোপাধ্যায়)‌ অভিনয় করেছেন একটা গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে।এছারা এই পুজোয় রিলিজ করছে ‘‌জুলফিকার’‌ আর ‘‌ব্যোমকেশ ও চিড়িয়াখানা’‌।‌‌

Source

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *