Bangla cinema, Bangla Movie News, Bangla Movies News, Bangla News, Bangla news, Bengali, Bengali cinema, Bengali Film News, Bengali films, Bengali Gossip

চিড়িয়াখানা পরিচালনার কথাই ছিল না বাবার সন্দীপ রায়

দেখতে দেখতে ৫০ বছর হয়ে গেল ‘চিড়িয়াখানা’ ছবিটার।কিন্তু জানেন কি চিড়িয়াখানা ছবিতি করার কথা ছিল না পরিচালকের । এবছর আবার সত্যজিৎ রায়ের 1967 বাংলা চলচ্চিত্র ছবিটা নিয়ে আসছেন পরিচালক অঞ্জন দত্ত।

সত্যজিৎ রায়ের ‘চিড়িয়াখানা’ একসঙ্গে দু-দুটি জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিল। সেরা পরিচালনা, সেরা নায়ক। সেই ছবির সিলভার জুবিলিতে নস্ট্যালজিক সত্যজিৎ পুত্র সন্দীপ রায় বল্লেন আমি বরং বাবার ছবিটি নিয়ে দু-একটি কথা বলতে পারি। যদিও আমি তখন বেশ ছোটই। তবু এই ছবিটি নিয়ে আমার উৎসাহ কম ছিল না। আপনাদের একটা তথ্য দিই। চিড়িয়াখানা ছবিটা বাবার করার কথাই ছিল না। বাবার এক সহকারী ছবিটি করবেন এমনই ঠিক ছিল।

 

Sandip roy

বাবা চিত্রনাট্য তৈরি করে দিয়েছিলেন। বাবা শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়ের লেখার ভীষণ ভক্ত ছিলেন। চিড়িয়াখানা গল্পটাও খুব পছন্দের ছিল। যেমন জোরালো গল্প, তেমনই নানা চরিত্র নিয়ে খেলা। কিন্তু বাবা তখন একটা অনিশ্চিত সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিলেন। গুপি গাইন করবেন সবকিছু ঠিকঠাক। গেল শেষমুহর্তে ভেস্তে। এইসময় সিনে ঢুকলেন উত্তমকুমার। উত্তমবাবু আসায় বাবার সহকারীরা সব ভয় পেয়ে গেলেন। এত বড় স্টারকে সামলানো কি চাট্টিখানি কথা। যাইহোক বাবা পরিচালনার ভার নেওয়ার পর তো প্রবল উৎসাহে নেমে পড়লেন।

এটা একটি অপরাধমূলক নাটকীয় চলচ্চিত্র, উত্তম কুমার ব্যোমকেশ বক্সী হিসেবে অভিনয় করেছিলেন। শিরোনাম মানে “চিড়িয়াখানা” বারাসত বামুনগাছির গোলাপ কলোনিতে সেট পড়েছিল। অনেকদিন ধরে সেট তৈরি করা হয়েছিল। আর বাকি শ্যুটিং হয়েছিল ইনডোরে। চিড়িয়াখানা নিয়ে পরেও বাবার সঙ্গে আমার কথা হত। ডিটেকটিভ গল্প পড়তে বাবা ভীষণ ভালোবাসতেন। আসলে চিত্রনাট্য নিয়ে বাবা বোধহয় অতটা খুশি ছিলেন না। অনুলিখন: সন্দীপ রায়চৌধুরী

Source

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *