>
Bangla cinema, Bengali, Bengali cinema, Bengali Film, Bengali Film Gossip, Bengali Gossip

‘বয়স্কদের একাকীত্ব গ্রাস করা ডিপ্রেশনের গল্প অনেক হয়েছে….’

মানসী সাহা, কলকাতা:  লাল টুকটুকে বেনারসী শাড়ি, নালে নলক, মাথায় টোপর নতুন কনে সেজেছেন ঠাম্মা। আশির দোরগোড়ায় প্রেমে পড়েছে সে। হয়েছে বছর পঁচিশের এক বয়ফ্রেন্ড। আর তাঁকে বিয়ে করা নিয়েই যত কাণ্ড! ‘ঠাম্মার বয়ফ্রেন্ড’ পরিচালক অনিন্দ্য ঘোষের আগামী ছবি। অনিন্দ্যের মুখ থেকে ঠাম্মা ও তাঁর বয়ফ্রেন্ডের কাহিনি শুনলেন মানসী সাহা…

 

Thammar Boyfriend

‘ঠাম্মার বয়ফ্রেন্ড’ কাহিনিটা কেমন?

ঠাম্মা, স্বামীর সূত্রে প্রাপ্ত বিরাট সম্পত্তি নিয়ে মফঃস্বলে থাকে। ছেলে-মেয়ে কলকাতায় থাকে। নাতি নাতনিও আছে। কিন্তু তারা এতই ব্যস্ত যে এখন আর কেউ মায়ের খোঁজ নেয় না। হঠাৎ ঠাম্মার এক বয়ফ্রেন্ড হয়। ঠাম্মা ঠিক করে তাকে বিয়ে করবে! সেই মতো ছেলে-মেয়েদের কাছে চিঠি পাঠায়। মায়ের বিয়ের খবর শুনে সবাই অবাক। ছুটে আসে মায়ের কাছে। আসলে সবটাই সম্পত্তি হাতছাড়া হওয়ার ভয়। সে কথা ভেবেই ছেলেমেয়েরা ইনসিকিওয়র্ড হয়ে পড়ে। তাই নিয়ে এগিয়েছে ছবির গল্প।

 

Thammar Boyfriend

আর বয়ফ্রেন্ড….

ঠাম্মার বয়ফ্রেন্ড ‘পার্থ’। একদিন নন্দিনি মিত্রের (ঠাম্মা) বাড়িতে পা রাখেন পার্থ। ধীরে ধীরে সে হয়ে ওঠে ‘ঠাম্মার বয়ফ্রেন্ড’।নন্দিনির আস্থা-ভাজন। পার্থের চরিত্রটার মধ্যে কোথাও চালিয়াতি আছে, কোথাও ওভারস্মার্টনেস আছে, কোথাও বেশি কথা বলা আছে, আবার কোথাও বা একদম চুপ করে যাওয়াও আছে।

READ ORIGINAL ARTICLE HOME PAGE

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *